সাম্প্রদায়িক দ্বন্দ্বের জেরে শ্রীলঙ্কায় জরুরি অবস্থা জারির পরও সহিংসতা অব্যাহত আছে। মঙ্গলবার রাতেও ক্যান্ডি শহরে দোকান ও একটি মসজিদে হামলা চালায় চরমপন্থিরা। এছাড়া কয়েকটি স্থাপনায় আগুনও দেয়া হয়। তবে পুলিশের দাবি পরিস্থিতি তাদের নিয়ন্ত্রণেই আছে।

কয়েকদিন ধরে দেশটির উত্তর-পূর্বাঞ্চলে মুসলমান ও বৌদ্ধদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ ও সহিংসতায় অন্তত একজন মুসলমানের মৃত্যু হয়। আহত হয় বেশ কয়েকজন। এর জেরে মঙ্গলবার দেশটিতে ১০ দিনের জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেন প্রেসিডেন্ট মাইথ্রিপালা সিরিসেনা। তিনি সহিংসতায় জড়িতদের চিহ্নিত কোরে, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘ যে সহিংসতা হয়েছে তার নিন্দা জানাচ্ছি আমি, শুধু নিন্দা নয়, সহিংসতার সাথে জড়িত ব্যক্তি, গোষ্ঠী এবং সংগঠনের বিরুদ্ধে সবচেয়ে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশও দিয়েছি আমি।’

রোহিঙ্গা সংকট শুরুর পর বৌদ্ধ সংখ্যাগরিষ্ঠ শ্রীলঙ্কায় নতুন কোরে সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা দেখা দেয়। সোমবার মুসলিম মালিকানাধীন একটি দোকানে উগ্রবাদী বৌদ্ধদের অগ্নিসংযোগের পরই দাঙ্গা ছড়িয়ে পড়ে।

https://youtu.be/ZifTkcyMtCE
Facebook Comments
Share.

About Author

Leave A Reply